২৫৬২ বুদ্ধাব্দ ৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শনিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৮ইংরেজী

কঠিন চীবর দান

মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০১৬ ০২:২৩ প্রতীক

কঠিন চীবর দান, বৌদ্ধ ধর্মের একটি ধর্মীয় আচার, ও উৎসব, যা সাধারণত বাংলা চন্দ্রপঞ্জিকা অনুযায়ী প্রবারণা পূর্ণিমা (ভাদ্র মাসের পূর্ণিমা) পালনের এক মাসের মধ্যে যেকোনো সুবিধাজনক সময়ে পালন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে মূলত বৌদ্ধ ভিক্ষুদেরকে ত্রি-চীবর নামে বিশেষ পোশাক দান করা হয়। ধর্মাবলম্বীগণ পূণ্যের আশায় প্রতি বছর এভাবে চীবরসহ ভিক্ষুদের অন্যান্য আনুষঙ্গিক সামগ্রীও দান করে থাকেন।
ত্রি-চীবর হলো চার খণ্ডের পরিধেয় বস্ত্র, যাতে রয়েছে দোয়াজিক, অন্তর্বাস, চীবর ও কটিবন্ধনী। এই পোশাক পরতে দেয়া হয় বৌদ্ধ ভিক্ষুদের। প্রতি বছর নির্দিষ্ট সময়ে, সাধারণত আষাঢ়ী পূর্ণিমা থেকে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই পোশাক বৌদ্ধ ভিক্ষুদেরকে দেয়া হয়। এই পোশাক তৈরি করার জন্য প্রস্তুতিস্বরূপ প্রথমে তুলার বীজ বোনা হয়, পরে তুলা সংগ্রহ করা হয়, তা থেকে সুতা কাটা হয়, সেই সুতায় রং করা হয় গাছ-গাছড়ার ছাল বা ফল থেকে তৈরি রং দিয়ে, এবং সবশেষে নানা আচার-অনুষ্ঠান ও ধর্মীয় নিয়ম-কানুন মেনে মাত্র ২৪ ঘণ্টায়, অর্থাৎ এক দিনের ভিতর তৈরি করা হয় এই ত্রি-চীবর। এই পোশাক বোনায় ব্যবহার করা হয় বেইন বা কাপড় বোনার বাঁশে তৈরি ফ্রেম। এরকম বেইনে একসঙ্গে চারজন কাপড় বুনে থাকেন। এভাবে ২৪ ঘন্টা পর তৈরি হওয়া সেসব পবিত্র চীবর, বৌদ্ধ ভিক্ষুদের হাতে তুলে দেয়া হয় কঠোর ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে। এভাবে চীবর দেয়া হলে কায়িক-বাচনিক ও মানসিক পরিশ্রম বেশি ফলদায়ক হয় বলে বৌদ্ধ শাস্ত্রে উল্লেখ রয়েছে। এভাবে সাধারণ্যের কঠোর পরিশ্রমে তৈরি চীবর, বৌদ্ধ ভিক্ষুদেরকে দান করার বিষয়টি প্রতিদানহীনভাবে কল্যাণের নিমিত্ত কাজ বৈ আর কিছু নয় এবং এজাতীয় অনুষ্ঠান সমাজে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে সহায়তা করবে বলে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস। তাছাড়া বুদ্ধের বাণী হলো, কঠিন চীবর দানই বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ দান। গৌতম বুদ্ধের সময় বিশাখা, বুদ্ধের জন্য এক দিনের ভেতর এভাবেই চীবর তৈরি করেছিলেন। আর তারই ফলশ্রুতি বর্তমান 'কঠিন চীবর দান' অনুষ্ঠানটি।

পূর্ণিমা সমূহ
প্রবারণা পূর্ণিমা
প্রবারণা পূর্ণিমা বৌদ্ধদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব। এর অপর নাম আশ্বিনী পূর্ণিমা। ‘প্রবারণা’… ( বিস্তারিত )
ফাল্গুনী পূর্ণিমা
বুদ্ধত্ব লাভের পর দীর্ঘকাল পিতা- স্ত্রী-সন্তানসহ জ্ঞাতিদের সঙ্গে বুদ্ধের সাক্ষাৎ হয়নি। সবার… ( বিস্তারিত )
আষাঢ়ী পূর্ণিমা
আষাঢ়ী পূর্ণিমায় গৌতম বুদ্ধ সিদ্ধার্থরূপে মাতৃগর্ভে প্রবিষ্ট হয়েছিলেন। বর্ণিত আছে কপিলাবস্তু নগরে… ( বিস্তারিত )
আরও
সমসাময়িক
ফ্রান্সে কম্বোডিয়ান বৌদ্ধ বিহারে ১৮ জুন শনিবার মহতি সংঘদান সুসম্পন্ন
আজ ১৮ জুন শনিবার সকাল ১০টায় শিল্প সংস্কৃতি ও সভ্যতার প্রাণকেন্দ্র ফ্রান্সের… ( বিস্তারিত )
ফ্রান্সে আগামী ২৯মে রবিবার বৈশাখী পূর্ণিমা উদযাপন
মহামতি গৌতম বুদ্ধের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি স্মৃতি বিজড়িত দিন বৈশাখী পূর্ণিমা আগামী… ( বিস্তারিত )
আরও
বুদ্ধের জীবনী
ছোটদের গৌতম বুদ্ধ
আজকে যারা ছোট, ভবিষ্যতে তারাই একদিন বড় হবে, জাতিকে নেতৃত্ব দিবে। তাই… ( বিস্তারিত )
বুদ্ধের সার্বজনীন উপদেশ
১) জগতে শত্রুতার দ্বারা কখনো শত্রুতার উপশম হয়না, মিত্রতার দ্বারাই শত্রুতার উপশম… ( বিস্তারিত )
আরও
বন্দনা
ভিক্ষু ও বোধি বন্দনা
ভিক্ষু বন্দনাওকাস, বন্দামি ভন্তে, দ্বারত্তযেন কতং সব্বং অপরাধং খমতু মে ভন্তে। দুতিযাম্পি… ( বিস্তারিত )
দন্ত ধাতু ও সকল চৈত্য বন্দনা
দন্ত ধাতু বন্দনাএকা দাঠা তিদসপুরে, নাগপুরে অহু । একা গান্ধার বিসযে, একাসি… ( বিস্তারিত )
বুদ্ধ, ধর্ম ও সংঘের বন্দনা
বুদ্ধের নয় গুণ বন্দনাইতি’পি সো ভগবা অরহং, সম্মাসম্বুদ্ধো, বিজ্জাচরণং সম্পন্নো, সুগতো, লোকবিদু,… ( বিস্তারিত )
আরও