২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ৬ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০১৭ইংরেজী

বুদ্ধের সার্বজনীন উপদেশ

রবিবার, ০৮ মে ২০১৬ ১৭:১৬ হিরো

১) জগতে শত্রুতার দ্বারা কখনো শত্রুতার উপশম হয়না, মিত্রতার দ্বারাই শত্রুতার উপশম হয়।
২) পরের কৃত ও অকৃত কার্যের প্রতি লক্ষ্য না রেখে নিজের কৃত ও অকৃত কার্যের প্রতি লক্ষ্য রাখবে।
৩) জগতে মাতা ও পিতার সেবা সুখকর। শ্রমণ ও ব্রাহ্মণদের পরিচর্যা জগতে সুখ দায়ক। বার্ধক্য পর্যন্ত শীল পালন সুখকর। শ্রদ্ধায় প্রতিষ্ঠিত হওয়াই সুখদায়ক। প্রজ্ঞালাভই সুখ জনক, পাপ না করাই সুখাবহ।
৪) যে ব্যক্তি দুঃশ্চরিত্র ও অসমাহিত হয়ে শতবর্ষ জীবিত থাকে তার জীবন অপেক্ষা সচ্চরিত্র ধ্যানী ব্যক্তির একদিনের জীবনও শ্রেয়।
৫) ইহা আমার ফল দেবে না, এইভাবে পাপকে সামান্য করনা, বিন্দু বিন্দু বৃষ্টিপাতে যেমন কুম্ভ পূর্ণ হয় তদ্রুপ অল্প অল্প পাপ সঞ্চয়ে অজ্ঞ ব্যক্তির পাপ পূর্ণ হয়।
৬) যিনি তোমার ক্রুটি প্রদর্শণ করেন ও তজ্জন্য ভৎর্সনা করেন সেই মাধাবীকে গুপ্তনিধির ন্যায় দেখবে।
৭) অর্থহীন সহস্র বাক্য অপেক্ষা একটিমাত্র সার্থক বাক্য যা শুনে লোকে শান্তি লাভ করে তাই শ্রেয়।
৮) সকলেই দণ্ডকে ভয় করে, জীবন সকলের প্রিয়। সুতরাং নিজের সাথে তুলনা করে কাকেও প্রহার করবে না কিংবা আঘাত করবে না।
৯) মৈত্রীর দ্বারা ক্রোধকে জয় করবে, সাধুতার দ্বারা অসাধুকে জয় করবে, ত্যাগের দ্বারা লোভকে জয় করবে ও সত্যের দ্বারা মিথ্যাবাদীকে জয় করবে।
১০) মা যেমন তাঁর নিজ পুত্রকে জীবন দিয়ে রক্ষা করে তেমনি সকল প্রাণীর প্রতি অপরিমেয় মৈত্রীভাব পোষণ করবে।